আবহাওয়া বিশ্বঘড়ি মুদ্রাবাজার বাংলা দেখা না গেলে                    
শিরোনাম :
শেখ হাসিনার অধীনেই আগামী বছর ডিসেম্বরের শেষ সপ্তাহে জাতীয় নির্বাচন!      হবিগঞ্জ ২ আসনে ধানের শীষের প্রার্থী আহমদ আলী মুকিব      অছাত্র ও চিহ্নিত শিবির কর্মীকে ছাত্রলীগের সভাপতি করার প্রতিবাদে ১১ ছাত্রলীগ নেতার পদত্যাগ       রাখাইনের জঙ্গলে লুকিয়ে থাকা রোহিঙ্গারা পানি আর ঘাস খেয়ে বেঁচে আছে: রয়টার্স      উখিয়া ও টেকনাফে সুপারি বাম্পার ফলনে চাষিদের মুখে হাসি      দিনাজপুর-৪ (চিরিরবন্দর-খানসামা) মাঠ গরমে ব্যস্ত নতুনরা      কুমিল্লায় মুক্তিযোদ্ধার বিরুদ্ধে ৫ পরিবারকে মামলা দিয়ে হয়রানির অভিযোগ      
দাতাদের সহায়তার প্রতিশ্রুতি বেড়েছে
Published : Tuesday, 30 August, 2016 at 3:02 AM, Count : 172
দাতাদের সহায়তার প্রতিশ্রুতি বেড়েছেবিডিহটনিউজ, ঢাকা: চলতি অর্থবছরের (২০১৬-১৭) প্রথম মাস জুলাইয়ে দাতাদের প্রতিশ্রুতি বেড়েছে। এ সময়ে দাতারা ১ হাজার ১৬৭ কোটি ৯১ লাখ ডলার অর্থ দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছে। 
গত অর্থবছরের একই মাসে এ প্রতিশ্রুতির পরিমাণ ছিল ৪ কোটি ১৫ লাখ মার্কিন ডলার। এদিকে প্রতিশ্রুতির পরিমাণ বাড়লেও গত বছরের একই সময়ের তুলনায় কমেছে অর্থছাড়ের পরিমাণ।
অর্থনৈতিক সম্পর্ক বিভাগ (ইআরডি) সূত্রে জানা যায়, গত অর্থবছরের জুলাই মাসে দাতারা ১৪ কোটি ৪০ লাখ মার্কিন ডলার ছাড় করেছিল। চলতি অর্থবছরের একই সময়ে তা কমে দাঁড়িয়েছে ১২ কোটি ৫৯ লাখ মার্কিন ডলারে। ছাড় করা অর্থের মধ্যে চলতি বছরের জুলাইয়ে ঋণের পরিমাণ ১২ কোটি ৪৪ লাখ ডলার এবং অনুদানের পরিমাণ ১৫ লাখ মার্কিন ডলার। গত অর্থবছরের একই সময়ে ছাড় করা অর্থের মধ্যে ঋণ ছিল ১৩ কোটি ৯০ লাখ মার্কিন ডলার এবং অনুদান প্রায় ৪১ লাখ মার্কিন ডলার।
এদিকে জুলাই মাসে মোট প্রতিশ্রুতির মধ্যে ঋণের পরিমাণ এক হাজার ১৬৬ কোটি ৭০ লাখ মার্কিন ডলার। এর মধ্যে রাশিয়ার সঙ্গে পারমানবিক বিদ্যুতকেন্দ্র নির্মাণ সংক্রান্ত চুক্তির আওতায় ঋণের পরিমাণই ১ হাজার ১৩৮ কোটি মার্কিন ডলার। তবে গত অর্থবছরের একই সময়ে প্রতিশ্রুতির মধ্যে কোনো ঋণ ছিল না।
চলতি অর্থবছরের জুলাই মাসে প্রতিশ্রুত অনুদানের পরিমাণ কমেছে। গত অর্থবছরের জুলাই মাসে প্রতিশ্রুত অনুদানের পরিমাণ ছিল ৪ কোটি ১৫ লাখ মার্কিন ডলার, যা এ বছরের একই সময়ে কমে দাঁড়িয়েছে ১ কোটি ২১ লাখ মার্কিন ডলারে।
চলতি অর্থবছরে জুলাই মাসে সরকার ঋণ পরিশোধ করেছে ৬ কোটি ৮০ লাখ ডলার। এর মধ্যে আসলের পরিমাণ ৫ কোটি ৩০ লাখ ডলার। আর সুদের পরিমাণ ১ কোটি ৫০ লাখ ডলার। গত অর্থবছরের একই সময়ে সরকার ঋণ পরিশোধ করেছিল ৮ কোটি ৪০ লাখ ডলার। এর মধ্যে আসলের পরিমাণ ৬ কোটি ৫৫ লাখ ডলার এবং সুদের পরিমাণ ১ কোটি ৮২ লাখ ডলার।
উল্লেখ্য, চলতি বছরের জুলাই মাসে বিভিন্ন প্রকল্পে বিশ্ব ব্যাংকের ছাড় করা অর্থের পরিমাণ দুই কোটি মার্কিন ডলার।








অর্থ ও বাণিজ্য পাতার আরও খবর
আজকের রাশিচক্র
সম্পাদক : ইউসুফ আহমেদ (তুহিন)

৭৯/বি, এভিনিউ-১, ব্লক-বি, মিরপুর-১২, ঢাকা-১২২৬, বাংলাদেশ।
ফোন : +৮৮-০২-৯০১৫৫৬৬, মোবাইল : ০১৯১৫-৭৮৪২৬৪, ই-মেইল : editor@natun-barta.com